“এক মাসের অ-ন্তঃস-ত্ত্বা আমি, এ বাচ্চার বাবা তুমি”,- কে তাহলে বাচ্চার বাবা, কি বললেন নুসরত, ভাইরাল ভিডিও!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- মাত্র একটি পোস্ট তো-লপা-ড় করে দিয়েছেন গোটা দুনিয়াকে । ঘনিষ্ঠ মহল থেকে পাওয়া সূত্র অনুসারে এমনটাই জানা যাচ্ছে । বাংলার অভিনয় জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তথা দায়িত্ববান সাংসদ নুসরাত জাহান এখন স-মা-লোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে । ঘ-নীভূ-ত হচ্ছে ক্রমশ তার জীবনে বি-চ্ছেদের মে-ঘ । এবং প্রতিনিয়ত সম্পর্কের প্রতি বেড়ে চলেছে জ-ল্পনা । তার পাশাপাশি তাঁর অনুরাগীদের থাকছে হাজার হাজার প্রশ্ন ।

বাংলা অভিনয় জগতে নুসরাত জাহানের সাফল্য নিয়ে নতুন কিছু বলার অপেক্ষা রাখে না । খোকা ৪২০ সিনেমার মাধ্যমে অভিনয় জগতে পদার্পণ করেন তিনি । তারপর একের পর এক দু-র্ধর্ষ ছবিতে অভিনয় করে জয় করে নিয়েছেন এই বাংলার মন । তার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও তৈরি করেছে বড়োসড়ো অনুগামী সংখ্যা । কিন্তু এরই মাঝে হঠাৎ করে তার জীবনের অর্থাৎ ব্যক্তিগত জীবনের সমস্যা প্রকাশ্যে উঠে এলে স-মা-লোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে হাজির হয়ে যায় এই নুসরাত জাহান ।

২০১৯ সালে তুরস্কের নিখিল জৈন সাথে জাঁকজমকপূর্ণভাবে বিবাহ সম্পন্ন হয় তার । কিন্তু তারপরে সবকিছু সঠিক ভাবে চললেও এস এস কলকাতা নামক সিনেমাটির শু-টিং করার সময় থেকে তাদের মধ্যে বিচ্ছেদ এর সূত্রপাত হয় । কলকাতাতে অভিনেতা যশ এর সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে নুসরাত জাহান । এবং দীর্ঘদিন ধরে তার জ-ল্পনা চলতে থাকে সোশ্যাল মিডিয়াতে । সে ব্যাপারে প্রকাশ্যে কিছু না জানালেও ঘনিষ্ঠ মহল থেকে জানা যাচ্ছে যে নুসরাত জাহান এবং যশ এর মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হয়েছে । তবে সব ঘটনা মুহূর্তের মধ্যে পাল্টে দিলো নুরজাহানের একটি পোস্ট ।

বেশ কিছুদিন আগে নুসরাত তার ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট শেয়ার এর মাধ্যমে তিনি জানালেন যে তিনি অ-ন্তঃস-ত্ত্বা। আর তারপর থেকে পুনরায় বেড়ে গেল জ-ল্পনা। নুসরাতের ঘনিষ্ঠ মহল থেকে পাওয়া সূত্র অনুসারে জানা যাচ্ছে যে এই মুহূর্তে নুসরাত জাহান এক মাসের অ-ন্তঃস-ত্ত্বা । তবে প্রশ্ন থাকে এর বাবা কে ? কারণ নিখিল স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে এই সন্তান তার নয় যদিও তার নেটিজেনদের অধিকাংশ মতামত এই সন্তানের বাবা যশ সেনগুপ্ত । নুসরাত এবং নিখিলের সম্পর্ক বি-চ্ছেদের জন্য একমাত্র দায়ী যশ সেনগুপ্ত । যদিও এ ব্যাপারে নুসরাত জাহান প্রকাশ্যে কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *